শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৪৯ পূর্বাহ্ন

ঘোষনা :
  সম্পূর্ণ আইন বিষয়ক  দেশের প্রথম দৈনিক পত্রিকা   দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল এর  পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা   । 
সংবাদ শিরোনাম :
খোকসায় শশুড়বাড়ির মিথ্যা ষড়যন্ত্রের শিকার মালিগ্রামের সোবাহান প্রামাণিক

খোকসায় শশুড়বাড়ির মিথ্যা ষড়যন্ত্রের শিকার মালিগ্রামের সোবাহান প্রামাণিক

 

খোকসা প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার খোকসায় শশুরের হাতে ধারালো অস্ত্রের কোপ খেয়ে জামাই সোবাহান প্রামাণিক এখন জীবননাশের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। ঘটনাটি উপজেলার মালিগ্রাম রাস্তাপাড়া গ্রামের। আহত জামাই অবশেষে শশুড় বাড়ির ৮ জনকে আসামী করে কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেছে।

জানা যায়, দীর্ঘ ১২ বছর পূর্বে উপজেলার মালিগ্রাম রাস্তাপাড়ার রশিদ প্রামাণিকের কণ্যার সাথে বিয়ে হয় একই গ্রামের মৃত জব্বার প্রামাণিকের ছেলে সোবাহান প্রামাণিকের। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই শশুড়বাড়ির লোকদের সাথে দ্বদ্ব চলে আসছিল সোবাহানের।

এই দ্বন্ধ ক্রমশ বেগ পেলে গত ৭ আগস্ট শশুড় রশিদের নেতৃত্বে তার ছেলে রিপন প্রামাণিক, ভাতিজা করিম প্রামাণিক, রশিদ প্রামাণিক, রেজাউল প্রামাণিক, রহমান প্রামাণিক সহ বেশ কিছু অজ্ঞাত লোক সোবাহানের বাড়িতে ঢুকে অতর্কিত হামলা করার অভিযোগ দেয় সোবাহান। এসময় সোবাহানকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে কোপ দেওয়া হয়। এই হামলায় আশংকাজনক অবস্থায় সোবাহানকে খোকসা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সোবাহান বলেন, আমার শশুর বাড়ির লোকজন খুবই ভয়ংকর প্রকৃতির। তাদের ভয়ে এলাকার কেউ কথা বলতে পারে না। তারা যেকোন সময় আমাকে হত্যা করতে পারে। এজন্য আমি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

শুধু মারধর করেও ক্ষান্ত হয়নি। শশুড়বাড়ির লোকজন সোবহান প্রামাণিককে ঘায়েল করার জন্য সুদ ব্যবসায়ী মিথ্যা অপবাদ দিয়ে সামাজিকভাবে ঘায়েল করতে চেষ্টা করে। কিন্তু কোকসার সচেতন মহল এ ষড়যন্ত্রকে রুখে দিয়েছে। এলাকার শতাধিক ব্যক্তি লিখিত আকারে শশুড়বাড়ির মিথ্যা অপবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে। এছাড়া সোবাহান প্রামাণিকের বিরুদ্ধে যে সকল পত্র-পত্রিকা মিথ্যাচার করেছে-সে সকল সংবাদের প্রতি তিনি তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

এই সংবাদ টি সবার সাথে শেয়ার করুন




দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  © All rights reserved © 2018 dainikinternational.com
Design & Developed BY Anamul Rasel