মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ০৪:২৯ অপরাহ্ন

ঘোষনা :
  সম্পূর্ণ আইন বিষয়ক  দেশের প্রথম দৈনিক পত্রিকা   দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল এর  পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা   । 
সংবাদ শিরোনাম :
স্বেচ্ছায় যৌনকর্ম করা কী অপরাধ? মা দিবসে মায়েদের নিয়ে ইবি রোটার‍্যাক্ট ক্লাবের ক্রীড়া ও ফল উৎসব নারী শিশু আইনে মিথ্যা মামলায় জামিন ও মুক্তির উপায়! ইবিতে ‘প্লান্ট সাইন্স’ বিষয়ক আন্তর্জাতিক সেমিনার  শিক্ষক-শিক্ষার্থী বিনিময় করবে ইবি এবং তুরস্কের ইগদির বিশ্ববিদ্যালয় চেকের মামলায় সাফাই সাক্ষী বনাম আসামীর নির্দোষিতা! খোকসার জনগনের সাথে ব্যাস্ত সময় কাটাচ্ছেন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বাবুল আখতার। খোকসার জনগনের সাথে ব্যাস্ত সময় কাটাচ্ছেন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বাবুল আখতার। কুমারখালীতে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন নিহত। ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের নিকট দোষস্বীকারে সাক্ষ্যগত মূল্য বনাম বাস্তবতা!
মুনির হত্যা মামলার রায় -৪ জনের ফাঁসি , ১ জনের যাবজ্জীবন

মুনির হত্যা মামলার রায় -৪ জনের ফাঁসি , ১ জনের যাবজ্জীবন

ডেস্ক রিপোর্টঃ মানিকগঞ্জে  বহুল আলোচিত কলেজ ছাত্র মুনির হত্যা মামলার রায় হয়েছে আজ সোমবার। রায়ে চার জনের ফাঁসি  ও এক জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। বাকী তিন জনকে খালাস দেয়া হয়েছে।

আজ দুপুরে মানিকগঞ্জ জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক শহিদুল আলম ঝিনুক এই রায় প্রদান করেন।

এই রায়ে মৃত্যুদন্ড প্রাপ্তরা হলো আনোয়ার হোসেন, বাদশা মিয়া,আজগর আলী এবং লাল মিয়া।  এছাড়া  সাভারের কথিত যুবলীগ নেতা আক্তার হোসেন জামাল ওরফে কামালকে যাবজ্জীবন কারদন্ড দিয়েছেন আদালত।

এই রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন মামলার বাদী নিহত মুনির হোসেনের মা মালেকা বেগম ও বাবা পরোশ আলী। রাষ্ট্র পক্ষের মামলা পরিচালনা করেন মানিকগঞ্জ জজ কোর্টোর অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম পিপি ।   অ্যাডভোকেট শিপ্রা সাহা ছিলেন আসামী পক্ষের আইনজীবী|

পিপি অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম জানান এই মামলায় সর্ব মোট ৮ জন আসামী ছিলো। তার মধ্যে ৫ জন আদালতে হাজির ছিলো। বাকী তিন জন এখনো পালাতক রয়েছে। এই রায়ে ৪ জনের ফাঁসি হয়েছে এবং একজনের যাবজ্জীবন হয়েছে ও ৩ জনকে খালাস দেয়া হয়েছে। আমরা এ রায়ে খুশি ।  এ রায় দ্রুত  কার্যকর হবে  বলে আশা করছি।

এ দিকে এই রায়ে আসন্তোষ প্রকাশ করে আসামী পক্ষের আইনজীবী শিপ্রা সাহা জানিয়েছেন  আমরা  এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করব।

উল্লেখ্য ২০১৫ সালের ৯ সেপ্টেম্বর মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার শিমুলিয়া গ্রামের প্রবাশী পরোশ আলীর একমাত্র পুত্র মুনির হোসেন মানিকগঞ্জ খান বাহাদুর আওলাদ হোসেন কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্র ছিলো। । একই এলাকার বাদশা মিয়া তাকে সেনাবাহীনিতে চাকুরী দেয়ার কথা বলে সাভারে নিয়ে যায়। এর পর মুনিরের পরিবারের কাছে ২০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে। পরদিন সাভারের হেমায়েতপুর সিংগাইর সড়কের শহীদ রফিক সেতুর কাছে মুনিরে লাশ পাওয়া যায়।

 

 

এই সংবাদ টি সবার সাথে শেয়ার করুন




দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  © All rights reserved © 2018 dainikinternational.com
Design & Developed BY Anamul Rasel