মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ০৪:৩৫ অপরাহ্ন

ঘোষনা :
  সম্পূর্ণ আইন বিষয়ক  দেশের প্রথম দৈনিক পত্রিকা   দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল এর  পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা   । 
সংবাদ শিরোনাম :
স্বেচ্ছায় যৌনকর্ম করা কী অপরাধ? মা দিবসে মায়েদের নিয়ে ইবি রোটার‍্যাক্ট ক্লাবের ক্রীড়া ও ফল উৎসব নারী শিশু আইনে মিথ্যা মামলায় জামিন ও মুক্তির উপায়! ইবিতে ‘প্লান্ট সাইন্স’ বিষয়ক আন্তর্জাতিক সেমিনার  শিক্ষক-শিক্ষার্থী বিনিময় করবে ইবি এবং তুরস্কের ইগদির বিশ্ববিদ্যালয় চেকের মামলায় সাফাই সাক্ষী বনাম আসামীর নির্দোষিতা! খোকসার জনগনের সাথে ব্যাস্ত সময় কাটাচ্ছেন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বাবুল আখতার। খোকসার জনগনের সাথে ব্যাস্ত সময় কাটাচ্ছেন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বাবুল আখতার। কুমারখালীতে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন নিহত। ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের নিকট দোষস্বীকারে সাক্ষ্যগত মূল্য বনাম বাস্তবতা!
আইনমন্ত্রী জানালেন ১০ বছরে সোয়া কোটি মামলার নিষ্পত্তি হয়েছে নিম্ন আদালতে

আইনমন্ত্রী জানালেন ১০ বছরে সোয়া কোটি মামলার নিষ্পত্তি হয়েছে নিম্ন আদালতে

ডেস্ক রিপোর্টঃ আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছেন, বর্তমান সরকারের আন্তরিক চেষ্টায় ২০০৯ সাল থেকে ২০১৮ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতসমূহ এবং সমপর্যায়ের ট্রাইবুনালসমূহে মোট ১ কোটি ১৩ লাখ ৭ হাজার ৭৬১টি মামলা নিষ্পত্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

জাতীয় সংসদে (২৯ অক্টোবর)  এম আবদুল লতিফের এক লিখিত বক্তব্যের উত্তরে এ তথ্য জানান আইনমন্ত্রী।

তিনি জানান, মামলার দ্রুত বিচার ও নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে অন্যতম প্রতিবন্ধকতা হলো এজলাস সংকট। এজলাস স্বল্পতা দূর করে সর্বোচ্চ কর্ম ঘণ্টা ব্যবহার করে বিচার কাজে গতিশীলতা আনয়নে সরকার কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, সারা দেশে বিচার ব্যবস্থার দীর্ঘসূত্রিতা কমিয়ে বিচার কাজ ত্বরান্বিত করার জন্য বিচারকদের সংখ্যা বদ্ধি ও এজলাস সংকট নিরসনে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। বিচার কাজে গতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে বিশেষ উদ্যোগে বিভিন্ন পর্যায়ে বিচারকের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে। জুডিসিয়াল সার্ভিস কমিশনকে গতিশীল করা হয়েছে যাতে করে দ্রুত সময়ের মধ্যে শূন্যপদে দ্রুত নিয়োগ দেয়া যায়।

আইনমন্ত্রী বলেন, ২০১৪ থেকে এ পর্যন্ত বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে ৬ জন ও হাইকোর্ট বিভাগে ২৮ জন বিচারপতি নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও অধঃস্তন আদালতে মোট ৪২৭ জন সহকারী জজ নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ১৩তম জুডিসিয়াল সার্ভিস পরীক্ষা-২০১৭ এর মাধ্যমে সহকারী জজ পদে ১৪৩ জন প্রার্থীর নিয়োগ পূর্ব প্রাক-পরিচয় যাচাই চলছে। প্রাক-পরিচয় যাচাই প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে তাদের নিয়োগ দেওয়া হবে। ১২তম জুডিসিয়াল সার্ভিস পরীক্ষা-২০১৮ এর লিখিত পরীক্ষা শেষ হয়েছে। সারা দেশে সহকারী জজ/ সিনিয়র জজের ৯৪টি পদ শূন্য রয়েছে। ১১তম জুডিসিয়াল সার্ভিস পরীক্ষার মাধ্যমে এ পদে নিয়োগ সম্পন্ন করা হবে। যুগ্ম জেলা জজ থেকে জেলা জজ পর্যায়ে ৪১টি পদ শূন্য রয়েছে। যা পদোন্নতি অথবা বদলির মাধ্যমে পূরণ করা হবে।

তিনি বলেন বর্তমান সরকার দেশে আরো ৫টি সন্ত্রাস বিরোধী বিশেষ ট্রাইবুন্যাল, ৭টি সাইবার ট্রাইবুন্যাল, ৮টি মানি লন্ডারিং ট্রাইবুন্যাল, ১২২টি অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত, ১৫৯টি যুগ্ম জেলা জজ আদালত, ১৯টি পরিবেশ আদালত, ৬টি পরিবেশ আপিল আদালত, ২১৪টি সহকারী/ সিনিয়র সহকারি জজ আদালত, ৩৪৬টি জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের পদ সৃজন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

 

এই সংবাদ টি সবার সাথে শেয়ার করুন




দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  © All rights reserved © 2018 dainikinternational.com
Design & Developed BY Anamul Rasel