সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:০৪ অপরাহ্ন

ঘোষনা :
  সম্পূর্ণ আইন বিষয়ক  দেশের প্রথম দৈনিক পত্রিকা   দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল এর  পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা   । 


৩০০ আসনের বিপরীতি ৩০৫৬ প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেছে

৩০০ আসনের বিপরীতি ৩০৫৬ প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেছে

ডেস্ক রিপোর্টঃ  ৩০০ আসনের বিপরীতি ৩০৫৬ প্রার্থী  মনোনয়ন দাখিল করেছেন  আসন্ন একাদশ  জাতীয় সংসদ নির্বাচনে। এর মধ্যে অনলাইনে দাখিল করা হয়েছে ৩৯ মনোনয়ন পত্র। অন্তত ১০১ জন  স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।আগামী ২ ডিসেম্বর তাদের মনোনয়নপত্র বাছাই করা হবে।

রিটার্নিং কর্মকর্তারা প্রার্থীর যোগ্যতা-অযোগ্যতা বিবেচনা করে আইনে নির্ধারিত উপায়ে কারো মনোনয়নপত্র বৈধ এবং অযোগ্য হলে অবৈধ ঘোষণা করবেন। রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্ত যাদের মনপুত না হবে কিংবা সংক্ষুব্ধ ব্যক্তিরা সেই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে এবং অন্য ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে পারবেন। এক্ষেত্রে সংক্ষুব্ধ ব্যক্তিকে সাদা কাগজে আবেদনের করে তথ্য-প্রমাণসহ অভিযোগ দায়ের করতে হবে নির্বাচন কমিশনে।

নির্বাচন কমিশনার নির্বাচন পরিচালনা শাখার যুগ্ম-সচিব ফরহাদ আহাম্মদ খান গণমাধ্যমকে জানান, প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর অভিযোগ দাখিল করতে হবে আগামী ৩, ৪ ও ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে। নির্বাচন কমিশন সেই অভিযোগ আমলে নিয়ে ৬, ৭ ও ৮ ডিসেম্বর শুনানি করে সিদ্ধান্ত দেবেন। এক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনই আপিল কর্তৃপক্ষের ভূমিকা পালন করবেন।

আগামী ৯ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময়। ১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ। আর ৩০ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ দিয়েও কেউ আশানুরূপ ফল না পেলে আদালতেও যেতে পারবেন। এক্ষেত্রে কেউ নির্বাচিত হওয়ার পরও অভিযোগ প্রমাণ হলে সংশ্লিষ্ট বিজয়ী প্রার্থির প্রার্থীতা বাতিল হতে পারে।

একাদশ সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার জন্য ঢাকা বিভাগে ৭০৮ জন, চট্টগ্রামে ৬৮৮ জন, রংপুরে ৩৬১ জন, রাজশাহীতে ৩৫৩ জন, খুলনায় ৩৫১ জন, বরিশালে ১৮২ জন, ময়মনসিংহে ২৩৬ জন এবং সিলেট ১৭৭ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ জানিয়েছেন, ঢাকা-৮ আসনে সবচেয়ে বেশি ২২টি মনোনয়নপত্র দাখিল হয়েছে। আর মাগুরা-২ আসনে জমা হয়েছে সর্বনিম্ন ৪টি মনোনয়নপত্র। ৩৯টি মনোনয়নপত্র অনলাইনে দাখিল করা হয়েছে। যার মধ্যে ব্ল্যাংক ৮টি, শুধু বায়োডাটা ৮টি আর প্রকৃত মনোনয়নপত্র ২৩টি দাখিল হয়েছে। আর স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অন্তত ১০১ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

দল ও জোটভিত্তিক তথ্য আজ বৃহস্পতিবার (২৯ নভেম্বর) দেওয়া যাবে জানিয়ে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, সারাদেশে উৎসবমুখরভাবে মনোনয়নপত্র দাখিল হয়েছে। কোথাও কোনো আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

নির্বাচনে এবার কোনো আসনে একক প্রার্থী মনোনয়ন দেওয়ার রেকর্ড নেই। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে অন্তত ৭টি আসনে এককপ্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন। সে সময় মোট মনোনয়নপত্র দাখিল হয়েছিল ১ হাজার ১০৭টি। ১৯৯১ সালের পর সেবার সবচেয়ে কম সংখ্যক মনোনয়নপত্র জমা পড়েছিল। ২০১৪ সালের নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি মনোনয়নপত্র দাখিল হয়েছিল ঢাকা-৮ আসনে, ২৩টি। সবচেয়ে কম হয়েছিল ময়মনসিংহ-১, ঠাকুরগাঁও-২, পাবনা-২, বাগেরহাট-৪, কিশোরগঞ্জ-৪ ও ৬ আসনে। এগুলোতে তিনটি করে মনোনয়নপত্র দাখিল হয়েছিল।

২০০৮ সালের নবম সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা পড়েছিল ২ হাজার ৪৬০টি। ২০০১ সালের অষ্টম সংসদ নির্বাচনের সময় ২ হাজার ৫৬৩টি, ১৯৯৬ সালে ৩ হাজার ৯৩টি এবং ১৯৯১ সালে ৩ হাজার ৮৫৫টি মনোনয়নপত্র জমা পড়েছিল।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ৮ নভেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। পরে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে চার দিনের মাথায় ১২ নভেম্বর পুনঃতফসিল ঘোষণা করা হয়। পুনঃতফসিল অনুযায়ী ৩০ ডিসেম্বর সংসদ নির্বাচনের ভোট। এ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৮ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিন ২ ডিসেম্বর এবং প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর।

সুত্রঃ lawyersclubbangladesh.com

 

এই সংবাদ টি সবার সাথে শেয়ার করুন




দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  © All rights reserved © 2018 dainikinternational.com
Design & Developed BY Anamul Rasel