সোমবার, ১৩ Jul ২০২০, ১০:০৭ পূর্বাহ্ন

ঘোষনা :
  সম্পূর্ণ আইন বিষয়ক  দেশের প্রথম দৈনিক পত্রিকা   দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল এর  পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা   । 


কার্য এবং অকৃতি

কার্য এবং অকৃতি

মোঃ শহিদুল্লাহ্:

সেদিন ইন সার্ভিস ট্রেনিং সেন্টারে কয়েকজন পুলিশ সদস্যের ক্লাস নিচ্ছিলাম ৷ হঠাৎ দেখলাম সামনের বেঞ্চে একজন কনস্টেবল বসে আছে, তার ইউনিফর্মের নেমপ্লেটে লেখা আছে ‘অকৃতি’৷ অকৃতি নামটা দেখে দন্ডবিধির ৩৩ ধারার ব্যাখ্যা করা কার্য এবং অকৃতি বিষয়টা মনে পড়ে গেল ৷ অনেকদিন ধরে ভাবছি ‘কার্য এবং অকৃতি’ বিষয়ে কিছু লিখব ৷ কনস্টেবল অকৃতি আমার মনের সেই তাগাদাকে আজ নতুন করে উস্কে দিলো৷ আমরা অনেক দিন ধরে শুনে আসছি ‘আকাশের যত তারা, পুলিশের তত ধারা”৷ ধারা শুধু পুলিশের নয়-আইনের ধারা বিজ্ঞ আদালতের, আপামর জনসাধারণের সবার৷ এবার প্রসঙ্গে আসি- আগে ‘কার্য এবং অকৃতি’ সম্পর্কে আলোকপাত করি৷ দন্ডবিধির ৩৩ ধারানুযায়ী কার্য বলতে একটা ক্রমিক কার্য শৃংখল বা কার্য পরস্পরকে একটা মাত্র কাজ বলে বুঝায়৷ অন্যদিকে অকৃতি (কোন কার্য না করা বা করতে অন্যথা করা) বলতে একটা ক্রমিক অকৃতি পরস্পরাকেও একটা মাত্র অকৃতি বলে বুঝায়৷ শুধু অপরাধজনক কাজ করলেই অপরাধ হয় না, আইনগত কাজ করা থেকে বিরত থাকলেও তা অপরাধ হয়৷ তাহলে বিষয়টা একটু বিশ্লেষণ করেই বলিঃ দন্ডবিধির ১৫৪ ধারায় বলা হয়েছে কোন বেআইনি সমাবেশ বা দাঙ্গা সংঘটিত হলে যে ভূমি/জমির উপর এরূপ বেআইনি সমাবেশ বা দাঙ্গা সংঘটিত হয়েছে সে জমির মালিক কিংবা তার প্রতিনিধি বা তার ম্যানেজার এ ধরনের অপরাধ সংঘটিত হয়েছে বা সংঘটিত হতে পারে বলে বলতে পারে বা বিশ্বাস করার কারণ রয়েছে সে তার সাধ্যমত যথাশীঘ্র সংশ্লিষ্ট থানার অফিসার ইনচার্জকে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য বিষয়টি অবহিত করবে এবং অপরাধ যাতে সংঘঠিত হতে না পারে তা আইনসম্মত উপায়ে প্রতিরোধ করার চেষ্টা করবে৷ যদি তিনি না করেন তবে এটা অকৃতি ফলে তিনি অনধিক এক হাজার টাকা পর্যন্ত যে কোন অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন৷ যদি কোন ব্যক্তি তার উপর কোন সমন,নোটিশ বা আদেশ জারি করার ক্ষমতাসম্পন্ন কোন সরকারি কর্মচারী যাতে তার উপর অনুরূপ কোন সমন নোটিশ আদেশ জারি করতে না পারে সে উদ্দেশ্যে তা এড়াবার জন্য সে তার উপস্থিতি গোপন করে পালিয়ে যায় তবে এটা তার আকৃতি৷ ফলে তার এক মাস পর্যন্ত বিনাশ্রম কারাদণ্ড অথবা পাচশত টাকা পর্যন্ত যে কোন অংকের অর্থদণ্ড কিংবা উভয় দন্ডই হতে পারে (১৭২ দন্ডবিধি)৷ যদি কোন ব্যক্তি কোন নির্দিষ্ট স্থানে সে স্বয়ং বা প্রতিনিধি মারফত হাজির হওয়ার নির্দেশ সম্বলিত সমন নোটিশ আদেশ বা ঘোষণা তার উপর জারি হওয়া সত্ত্বেও সে সেখানে নির্দিষ্ট তারিখ ও সময়ে হাজির না হয় বা হাজির হওয়ার পর আইনসঙ্গত সময়ের পূর্বে সেই স্থান ত্যাগ করে তাহলে সে এক মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদের বিনাশ্রম কারাদণ্ড কিংবা পাচশত টাকা পর্যন্ত যে কোন অংকের অর্থদণ্ড কিম্বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হবে৷ সমন, নোটিশ, আদেশ বা ঘোষণা যদি কোন বিজ্ঞ আদালতে হাজির হওয়ার জন্য হয়ে থাকে সে যদি সেটা না করে তবে তার এই অকৃতির জন্য সে ছয় মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদের বিনাশ্রম কারাদণ্ডে কিংবা এক হাজার টাকা পর্যন্ত যে কোন অংকের অর্থদণ্ডে কিংবা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হবে( ১৭৪ দন্ডবিধি)৷ কোন ব্যক্তি কোন সরকারি কর্মচারী সমীপে কোন দলিল পেশ করার জন্য বা জলিল হস্তান্তর করার জন্য আইনত ভাবে বাধ্য হওয়া সত্বেও সে যদি তা না করে তবে তার এই আকৃতির জন্য সে এক মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়েদের বিনাশ্রম কারাদণ্ড কিংবা পাঁচশত টাকা পর্যন্ত যে কোন অংকের অর্থদণ্ড কিংবা উভয় দন্ডে দণ্ডিত হবে৷ দলিলটি যদি বিচারালয়ে পেশ যোগ্য হয় তবে সে ব্যক্তি ছয় মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদের বিনাশ্রম কারাদণ্ডে কিংবা এক হাজার টাকা পর্যন্ত যে কোন অংকের অর্থদণ্ড কিংবা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবে(১৭৫ দন্ডবিধি)৷যদি কোন ব্যক্তি কোন সরকারি কর্মচারীর নিকট কোন নোটিশ বা সংবাদ দিতে আইনত বাধ্য থেকেও আইনের নির্দেশিত পদ্ধতি ও ও সময়ে নোটিশ বা সংবাদ না দেয় তবে সে ব্যক্তি এক মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদের বিনাশ্রম কারাদণ্ড কিংবা পাঁচশত টাকা পর্যন্ত যে কোন অংকের অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবে(১৭৬ দন্ডবিধি)৷ কোন ব্যক্তি আইনানুগভাবে ক্ষমতা সম্পন্ন কোন সরকারি কর্মচারী কর্তৃক সত্য বলবার জন্য শপথ বা অঙ্গীকারাবদ্ধ হওয়ার জন্য নির্দেশিত হবার পর তা করতে অস্বীকৃতি জানায় তবে এ অকৃতির জন্য তার ছয় মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদের বিনাশ্রম কারাদণ্ড কিংবা এক হাজার টাকা পর্যন্ত যে কোন অংকের জরিমানা কিংবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবে (১৭৮দন্ডবিধি) কোন ব্যক্তি কোন সরকারি কর্মচারীর নিকট কোন বিষয়ে সত্য বিবরণ দিতে আইনত বাধ্য হওয়া সত্ত্বেও এবং কোন বিষয় সংক্রান্তে কোন প্রশ্নের সঠিক জবাব দেবার জন্য বাধ্য হওয়া সত্ত্বেও সে যদি তা অস্বীকার করে তবে তার এই অকৃতির জন্য সে ছয় মাস পর্যন্ত যে কোন মেয়াদের বিনাশ্রম কারাদণ্ড কিংবা এক হাজার টাকা পর্যন্ত যেকোনো অঙ্কের অর্থদণ্ড কিংবা উভয় দন্ডে দণ্ডিত হবে (১৭৯ দন্ডবিধি)৷ যদি কোন ব্যক্তি আইনানুগ ক্ষমতা সম্পন্ন কোন সরকারি কর্মচারী নিকট তাহার প্রদত্ত বিবৃতিতে স্বাক্ষর দিতে অস্বীকার করে তবে এ অকৃতির জন্য তিনি তিন মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদের বিনাশ্রম কারাদণ্ড কিংবা পাঁচশত টাকা পর্যন্ত যে কোন অংকের অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন (১৮০ দন্ডবিধি) যদি কোন ব্যক্তি কোন সরকারি কর্মচারীর সরকারি কর্তব্য সম্পাদনে সাহায্য করতে বাধ্য হওয়া সত্ত্বেও সাহায্য না করে যেমন কোন পলাতক আসামিকে ধরতে সাহায্য না করে তবে এই অকৃতির জন্য তিনি এক মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়েদের বিনাশ্রম কারাদণ্ড কিংবা দুইশত টাকা পর্যন্ত যেকোনো অংকের অর্থদণ্ড কিংবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন৷ সাহায্যের কাজটা যদি বিজ্ঞ আদালতের আইনসম্মতভাবে দেওয়া সমন কার্যকারী করা কিম্বা কোন অপরাধের সংঘটন নিবারণের জন্য কিংবা কোন দাঙ্গা বা কলহ দমনের জন্য কিংবা কোন অপরাধে বা আইনসম্মত আটক থেকে পালানোর দায়ে অভিযুক্ত বা দোষী ব্যক্তিকে গ্রেফতার করার জন্য সাহায্য দাবি করতে আইনসম্মতভাবে ক্ষমতাবান কোন সরকারি কর্মচারী কর্তৃক দাবি করা হয় তাহলে সেই ব্যক্তি ছয় মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদের বিনাশ্রম কারাদণ্ড কিংবা পাঁচশত টাকা পর্যন্ত যে কোন অংকের অর্থদণ্ড কিংবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন (১৮৭ দন্ডবিধি)৷

(আরো আলোচনা পরবর্তী পর্বে দেওয়া হবে)

লেখকঃ-রেঞ্জ ডিআইজি রিওয়ার্ড (১৩ বার) প্রাপ্ত, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (অবঃ), বিভিন্ন বিষয়ের লেখক এবং আইন বিশ্লেষক
মোবাইল-০১৭৪০৩০০৬০০.

এই সংবাদ টি সবার সাথে শেয়ার করুন




দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  © All rights reserved © 2018 dainikinternational.com
Design & Developed BY Anamul Rasel