মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৪৫ অপরাহ্ন

ঘোষনা :
  সম্পূর্ণ আইন বিষয়ক  দেশের প্রথম দৈনিক পত্রিকা   দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল এর  পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা   । 


জমি-জমা নিয়ে ৬টি সমস্যা এড়িয়ে চলুন!

 

এ্যাডভোকেট সিরাজ প্রামাণিক
জমি-জমা নিয়ে যে ৬টি কারণে সবচেয়ে বেশী বিরোধ আর মামলা-মোকদ্দমা হয় সে বিষয়গুলো এড়িয়ে চলা ও উত্তোরণের উপায়সমূহ নিয়ে আজকের নিবন্ধ।

জরিপ অনুযায়ী বাংলাদেশে এই মূহুর্তে বিচারাধীন মামলার সংখ্যা প্রায় ৪০ লাখের মত। এসব মামলার বড় অংশটি প্রায় ৬০ শতাংশ মামলা জমিজমা সংক্রান্ত। জমিজমা নিয়ে সবচেয়ে বেশি মামলা দায়ের হয় পরিবারের সদস্য এবং শরিকদের বিরুদ্ধে। এ ধরণের বিরোধের পেছনে প্রধান কারণ থাকে জমির বণ্টন সংক্রান্ত বিবাদ। জমির মালিকের মৃত্যুর পর, তার ওয়ারিশদের মধ্যে সম্পত্তির বণ্টন যথাযথ বা দাবিমত না হলে, কিংবা আইনসিদ্ধ না হলে এ বিরোধের সূত্রপাত্র ঘটে।
ফলে সম্পত্তিতে অধিকার প্রতিষ্ঠায় বাটোয়ারা মামলা হয়।

আবার আপনার পদ, পদবী, ব্যক্তিগত অধিকার বা সহায় সম্পত্তিতে আপনার আইনগত স্বত্ব বা অধিকার বিঘিœত হলে আপনি ঘোষণামূলক মোকদ্দমা দায়ের করতে পারেন।

কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি সম্পাদনের পর তা বাস্তবায়নে গড়িমসি করলে এনফোর্সমেন্ট অব কনট্যাক্ট বিষয়ে চুক্তিমূলে কবলা পাবার মামলা আনয়ন করতে হয়।

কোনো ব্যক্তি যদি প্রতারণার উদ্দেশ্যে আপনার জমির ভুয়া দলিল, মিথ্যা দলিল, সৃজন দলিল তৈরী করে স্বত্ব বা দখল হাসিল করতে চান, তাহলে উক্ত দলিল বাতিলের জন্য দলিল বাতিলের মামলা আনয়ন করতে পারেন। আর আপনি জমি থেকে বে-দখল হওয়ার আশংকা করলে জমিতে ইনজাংশন বা নিষেধাজ্ঞা জারি করতে পারেন।

জমি রেজিষ্ট্রির পর দলিলে দাগ, খতিয়ান, মৌজা, চৌহদ্দি বা নামের বানানে কোন প্রকার ভুল ধরা পড়লে কিংবা দলিল লেখার বিবরণে বর্ণিত তারিখ, দলিল নম্বর কিংবা তথ্যের যথার্থ ভুল হলে আপনি দলিল সংশোধনের মামলা করতে পারবেন কিংবা কিংবা সংশ্লিষ্ট রেজিস্ট্রি অফিসে গিয়ে ভ্রুম সংশোধনী দলিল করিয়ে নিতে পারেন।

আপনার সম্পত্তি যদি কেউ জোর করে দখল করে নেয়, জবর দখল করে রাখে, সম্পূর্ণ অবৈধভাবে আপনাকে স্থাবর সম্পত্তি থেকে উচ্ছেদ করে, তাহলে আপনি দখল উচ্ছেদের মামলা করে প্রতিকার পেতে পারেন। অগ্রক্রয় বা প্রিএমশন হচ্ছে কোন মালিকের তার অংশীদার বা পার্শ্ববর্তী জমির মালিক কর্তৃক অন্য কারও কাছে বিক্রি করা জমি বিক্রয় মূল্য ফেরত দিয়ে পূণ:কেনার অধিকার।এছাড়া বাড়ি, গাড়ি, দোকান, গুদাম ভাড়া নিয়ে জটিলতা হলে ভাড়াটিয়া আইনে মামলা করা যায়।

প্রতিবেশীর সাথে পথের অধিকার, সুখের অধিকার, আলো-বাতাসের অধিকার, পানির অধিকার নিয়ে বিরোধ হলে ইজমেন্ট মামলা দায়ের করে প্রতিকার পেতে পারেন। টাকা পয়সা নিয়ে বিরোধ হলে মানি স্যুট মামলা করে প্রতিকার পেতে পারেন। এছাড়া রয়েছে অর্পিত সম্পত্তি পূণঃরুদ্ধার মামলা, ভূমি জরিপ সংক্রান্ত মামলা, আদেশমূলক নিষেধাজ্ঞা মামলা, ক্ষুদ্র মামলা, আর্বিট্রেশন মামলা, সাকসেশন মামলা, নির্বাচন সংক্রান্ত মামলা, চুক্তি রদ সংক্রান্ত মামলা।

এ মামলাগুলো কখন, কোথায়, কিভাবে করতে হয়, বিজয়ী হওয়ার উপায়গুলো কি, কত সময়ে মামলা নিষ্পত্তি করা যায়-এসব নিয়ে আরও জানতে নিম্নের লিংকে ভিডিওটি দেখতে পারেন।https://www.youtube.com/watch?v=HTzlkrUg-xg

লেখকঃ আইনের শিক্ষক, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও আইনগ্রন্থ প্রণেতা। ইমেইলঃ seraj.pramanik@gmail.com, মোবাইলঃ ০১৭১৬৮৫৬৭২৮

এই সংবাদ টি সবার সাথে শেয়ার করুন




দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  © All rights reserved © 2018 dainikinternational.com
Design & Developed BY Anamul Rasel