রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৫২ পূর্বাহ্ন

ঘোষনা :
  সম্পূর্ণ আইন বিষয়ক  দেশের প্রথম দৈনিক পত্রিকা   দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল এর  পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা   । 
সংবাদ শিরোনাম :
বিচারক ও আইনজীবীঃ কার মর্যাদা ক্ষমতা কতটুকু? দি ওল্ড কুষ্টিয়া হাই স্কুলের এসএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত দৈনিক সূত্রপাত পত্রিকার ১যূগ পূর্তি উদযাপন কুষ্টিয়ায় নাইট ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ২০২৪ এর শুভ উদ্বোধন কুষ্টিয়ায় খাজানগর প্রাইম ল্যাবরেটরি স্কুলে পিঠা উৎসব দৌলতপুরে মাহিম ফ্যাশন লিমিটেড গোল্ডেন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন অনুষ্ঠান কুষ্টিয়ায় যুবকের খণ্ডিত লাশ উদ্ধার : সাবেক ছাত্রলীগ নেতাসহ আটক- ৫ জয় নেহাল মানবিক ইউনিটের উদ্দ্যোগে থানাপাড়া  প্রাক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আলোচনায় সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী খাজানগরের এনামুল চবির উপাচার্যের দৌড়ে এবার বিতর্কিত অধ্যাপক
ইবিতে শিক্ষা দিবসে সংসদীয় ও বারোয়ারী বিতর্ক অনুষ্ঠিত

ইবিতে শিক্ষা দিবসে সংসদীয় ও বারোয়ারী বিতর্ক অনুষ্ঠিত

ইবি প্রতিনিধি

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৯৬২’র মহান শিক্ষা দিবসকে জাতীয় চেতনায় ধারণ করতে সংসদীয় ও বারোয়ারী বিতর্ক প্রতিযোগিতা আয়োজন করেছে ছাত্র ইউনিয়ন ইবি সংসদ। রবিবার বেলা ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ঝাল চত্ত্বরে সংগঠনটির দলীয় টেন্টে এ বিতর্ক অনুষ্ঠানটি আয়োজিত হয়।

 

অনুষ্ঠানের ১ম পর্বে সংসদীয় বিতর্কের বিষয় ছিল “৬২’র শিক্ষা আন্দোলনই ছিল মহান স্বাধীনতার পটভূমি”। এতে প্রস্তাবনাটির পক্ষে সরকারি দলে অংশগ্রহণ করেন নাজমুস সাকিব (প্রধানমন্ত্রী), ইয়াছিন আলী (মন্ত্রী) ও নাহিদ হাসান (সাংসদ)। অপরদিকে প্রস্তাবনার বিপক্ষে বিরোধী দলে সায়েম আহমেদ (বিরোধী দলীয় নেতা), আহমাদ গালিব (বিরোধী দলীয় উপনেতা) ও জিন্নাত মালিয়াত সীমা (বিরোধী দলীয় সাংসদ) অংশগ্রহণ করেন। এতে বিরোধীদল বিজয়ী হন এবং বিরোধী দলের নেতা সায়েম আহমেদ শ্রেষ্ঠ বিতার্কিক হন।

 

প্রতিযোগীতার ২য় পর্বে “শিক্ষা আন্দোলন বাঙালি জাতিসত্ত্বার পরিচায়ক” বিষয়ে উম্মুক্তভাবে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে বারোয়ারী বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রথম হন আল ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের সায়েম আহমেদ। অনুষ্ঠান শেষে বিজয়ীদের পুরষ্কার তুলে দেন বিচারকমন্ডলী।

 

প্রতিযোগিতায় বিচারক হিসেবে ছিলেন ইবি প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও সংগঠনটির সাবেক সহ-সভাপতি রুমি নোমান, সংগঠনটির সভাপতি ইমানুল সোহান এবং সাধারণ সম্পাদক মোখলেছুর রহমান সুইট। এতে স্পিকার হিসেবে ছিলেন জিয়াউর রহমান হল ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি তামিম আদনান এবং সময় নিয়ন্ত্রক সংগঠনটির কোষাধ্যক্ষ নুর আলম।

 

ছাত্র ইউনিয়ন ইবি সংসদের সাবেক সহ-সভাপতি রুমি নোমান বলেন, ‘সশিক্ষা সংস্কার আন্দোলনের অন্যতম দাবি ছিল বিশ্ববিদ্যালয় সরকারীকরণ নিয়ে, কিন্তু মুক্তিযুদ্ধের পর আজ প্রায় পঞ্চাশের অধিক বিশ্ববিদ্যালয় পাবলিক বা স্বায়ত্তশাসিত হয়েছে। আদৌ কি আমরা পেরেছি সরকারীমুক্ত হতে? পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কি এককভাবে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা রয়েছে? আগামীতে যদি পরিপূর্ণ স্বায়ত্তশাসন ও সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা না দেওয়া হয়, তবে স্বাধীন এবং মুক্তমনা ছাত্রসমাজ গঠনে প্রতিবন্ধকতা থেকে যাবে।

এই সংবাদ টি সবার সাথে শেয়ার করুন




দৈনিক ইন্টারন্যাশনাল.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  © All rights reserved © 2018 dainikinternational.com
Design & Developed BY Anamul Rasel